মৃগাঙ্ক-শর্বরী

0

মৃগাঙ্ক এবং শর্বরী উভয়ই কলা বিভাগের স্নাতকের শেষ বর্ষের student। তাদের বন্ধুত্ব  বেশ কয়েক বছর ধরেই গাঢ় হয়েছে। তারা পড়াশুনার জন্য একে অপরের সাথে বই বিনিময় করে। মৃগাঙ্ক একদিন মন স্থির করলো যে, শর্বরীকে সে তার মনের গোপন ভালোবাসার কথা জানাবে। সোজাসুজি বললে যদি শর্বরী তার প্রস্তাব উপেক্ষা করে তাই মৃগাঙ্ক নিজের ভালোবাসার কথা জানাতে একদিন পাঠ্য বই-এর মধ্যে একটি প্রেম নিবেদনের চিঠি দিল।

-তারপর?

প্রেম সম্পর্কিত বাক্যালাপ পত্রের মাধ্যমেই এগিয়ে গেল।

শর্বরীকে দেওয়া মৃগাঙ্কের প্রথম চিঠি

মৃগাঙ্ক-শর্বরী পত্র ১

শর্বরীর থেকে পাওয়া মৃগাঙ্কের প্রথম চিঠির উত্তর

মৃগাঙ্ক-শর্বরী পত্র ২

শর্বরীকে দেওয়া মৃগাঙ্কের দ্বিতীয় চিঠি

মৃগাঙ্ক-শর্বরী পত্র ৩

নিবেদিত প্রেমের প্রস্তাব গ্রহণে শর্বরীর পাঠানো মৃগাঙ্কের উদ্দেশ্যে শেষ চিঠি

মৃগাঙ্ক-শর্বরী পত্র ৪

চিঠির মাধ্যমে প্রেমের প্রস্তাব গ্রহণের পর শর্বরী এবং মৃগাঙ্ক এক বিকেলে কলকাতা ময়দানে বেড়াতে গেল। প্রথমবার যখন ওরা একে অপরের হাত ধরে হাঁটতে শুরু করলো তখন শর্বরী মৃগাঙ্কের উদ্দেশ্যে বলল, “এ প্রেম তো হবারই ছিল। মৃগাঙ্ক ছাড়া যে শর্বরী অমাবস্যায় ঢাকা অন্ধকার”।

রচনা – দেবশ্রী, উপস্থাপনা – ঋতম

[স্বীকারোক্তিঃ রবীন্দ্র সঙ্গীতের গীতিকবিতা অপরিবর্তিত রাখার জন্য প্রথম পত্রে মৃগাঙ্ক শর্বরীকে ‘সখী’-র পরিবর্তে ‘সখা’ বলে সম্বোধন করেছে।]

আপনার লেখা এখানে প্রকাশিত করার জন্য  নীচের বাটন-এ ক্লিক করুন

0

Leave a Comment

error: Content is protected !!