শিবের জামাইষষ্ঠী যাত্রা

2+

আজ জামাইষষ্ঠী, তাই সকাল সকাল শিব তৈরী হচ্ছে, জামাইষষ্ঠীতে যাবে বলে। শিবের পোশাক বলতে, বাঘের ছাল আর ক্রিম হল ছাইভস্ম। দুর্গা অনেক বার বলেছে, আজকের দিনে একটু অন্য পোশাক পড়তে, কিন্তু কে শোনে কার কথা! এদিকে দুর্গাও খুব ব্যস্ত, মেয়ে জামাইরা আসবে ষষ্ঠী করতে। তাই আর বাপের বাড়ি যাওয়া হবে না। খুব ইচ্ছে ছিল কিন্তু যেতে পারবে না। গনেশও জামাইষষ্ঠী করতে চলে যাবে। কার্তিকটা এখনও আইবুড়ো থেকে গেলে, তার মন খারাপ, সবাই আনন্দ করবে আর সে বাড়িতে বসে থাকবে। এদিকে শিবের শ্বশুর গিরিরাজ শিবকে ভালো পছন্দ করেন না। আবার দুর্গাও যেতে পারবে না, তাই শিবের একটু নার্ভাস লাগাচ্ছে। তখন কার্তিক বায়না ধরল তাকেও নিয়ে যেতে হবে মামার বাড়ি।

কার্তিক বলল: বাবা আমাকে নিয়ে চলো না মর্ত্যে,আমি তোমার সাথে যাব। ওখান যদি ভালো মেয়ে পেয়ে যাই, তাহলে আমার আইবুড়ো নামটা ঘুচবে।

শিব: জামাইষষ্ঠী দিন তুই মেয়ে কোথায় পাবি? আজতো বিবাহিত মেয়েদের দিন, চারিদিকে শুধু বিবাহিত মেয়েরা ঘুরে বেড়াবে।

কার্তিক: পূজোর সময় কত সুন্দর সুন্দর মেয়ে দেখেছিলাম, মা তো আমার হাত ছাড়ল না, হাত ধরে টেনে রাখল, যেতে দিল না ।

শিব: তোকে বলেছিলাম না ভ্যালেন্টাইন Day-তে মর্ত্যে যেতে, ওই দিন কত সুন্দর সুন্দর মেয়ে ঘুরে বেড়ায়। তুই তো কি সব অজুহাত দেখিয়ে আর গেলি না।

দুর্গা: ছেলেটা কে নিয়ে যাও না, কত করে মামারবাড়ি যেতে চাইছে, আর কার্তিক সঙ্গে থাকলে বাবাও তোমাকে বেশি কিছু বলতে পারবে না।

দুর্গার কথায় শিব রাজি হয়ে গেল। শিব, কার্তিক কে সঙ্গে নিয়ে চলল মর্ত্যে জামাইষষ্ঠী করতে।

রচনা – সম্পা মাজি

আপনার লেখা এখানে প্রকাশিত করার জন্য  নীচের বাটন-এ ক্লিক করুন

2+

Leave a Comment

error: Content is protected !!