অনুযোগ

0

আজকে তোমার অনুযোগ বড়, বৌ তোমাকে দেখছে না আর

কেন!! হাতের কাছে তো সবই পাচ্ছো, প্রয়োজন যা রোজ তোমার।

মনের কারবারি তুমিতো ছিলে না, তুমিতো বিশাল ব্যবসাদার

যতটুকু দাও, তার বেশি চাও, লাভটুকু শুধু বোঝা দরকার।

খাওয়া দিচ্ছ, পড়া দিচ্ছ, দিয়েছো অধিকার ক্রেডিট কার্ডের

চাওনি তো কভু মনের খবর, আজ অভিযোগ কিসের তরের।

ছিলাম বসে অপেক্ষাতে, প্রতিদিনের সাঁঝের বেলায়

আমার সে সাজ বিফল গেছে, চোখ তুলে তুমি দেখনি হেলায়।

পার্টিতে তোমার যান্ত্রিক হাসি, সুন্দরী বউ, বিজ্ঞাপন

স্ত্রী তোমার বড় একলা ছিল, ঘিরে ছিল তোমায় বন্ধুস্বজন।

আমি ছিলাম এক শোপিস ঘরে, আজও আমি আছি যেমন

সেদিন ছিলাম জীবন্ত এক, আজকে আমার প্রাণহীন মন।

জন্মদিন তোমার মনে থাকেনি, স্নানের পরে করলে প্রণাম

অসোয়াস্তি কেবল চোখে মুখে, কাজের কখনো হয়নি বিরাম।

বিবাহ বার্ষিক সেলিব্রেশন, পড়লে মনে আজ কান্না পায়

পার্টির কত জাঁকজমক আর চোখ খোঁজে মোর আড়াল যে হায়।

প্রাণহীন কিছু শরীরী আদর, তাই এলো না আর কোনো প্রাণ

কোলটুকু খালি রয়েই গেল, শিকে ছিঁড়ল না কোনো শিশুর দান।

তুমি তখন মাঝ গগনে, বিজনেস ম্যাগনেট, তোমার ছবি

সারা পৃথিবী তোমার ছিল, আমার হাতে আমার প্রিয় কবি।

সতেরো বছর, বড় দীর্ঘ সময়, তিলে তিলে আমি মরছিলাম

তোমার তখন চাঁদ মুঠিতে, আমি অপাংক্তেয় ছিলাম।

মাঝরাতে মোর সঙ্গী হতো দূরের সে চাঁদ, দখিন হাওয়া

হয়নি আমার স্বপ্ন পূরণ, তোমায়, শুধু তোমায় পাওয়া।

আজ আমি এক মক্ষীরানি, স্তাবক আমায় ঘিরেই থাকে

নাট্য জগৎ নাম দিয়েছে, এখন চেনে অনেক লোকে।

অভিনয় তো ভালোই পারি, তোমার কাছেই শেখা তো সব

হাসির মোড়ক দাবিয়ে রাখে ভিতর ঘরের যন্ত্রণা রব।

চাইছো তুমি ফিরে পেতে সেই আমাকে আর ভালোবাসা!

কবে মরেছে তোমার রাকা, আজ আর নেই ফেরার আশা।

সময় বুঝলে, তুমি দিলেনা সময়, সময় বড়ই অভিমানী

যে চলে যায় আর ফেরে না, ফেরে দীর্ঘশ্বাস আর আত্মগ্লানি

রচনা – পার্থ

ভালো লাগলে অবশ্যয় লাইক করবেন 👇
0

আপনার লেখা এখানে প্রকাশিত করার জন্য  নীচের বাটন-এ ক্লিক করুন

0

Leave a Comment

error: Content is protected !!