কবিতাঃ পাত্রী দেখা

0   কবিতাঃ “পাত্রী দেখা” কলমেঃ আবু তাহের তারিখঃ ০৮.১২.২০ গদ্য কবিতা ( সাতক্ষীরা,বাংলাদেশ ) সাপ্তাহিক ছুটির দিনে লজিং ম্যানের আহবানে গিয়েছিলাম খুলনায়, পাত্রী দেখতে। পাত্রীপক্ষের আপ্যায়নের কমতি ছিল না মোটেও। তাই তো তাদের আয়োজনের উপর শ্রদ্ধা রেখে, নিরাশ না করে ভরপেট খেলাম কব্জি ডুবিয়ে। তার পর পাত্রী এলো সেই চিরাচরিত রীতিতে পান ডালা হাতে। … Read more

কবিতাঃ “কিছু লিখতে হবে”

0 কবিতাঃ”কিছু লিখতে হবে” কলমেঃ আবু তাহের তারিখঃ২৭.১১.২০ গদ্য কবিতা (সাতক্ষীরা) আজ কয়দিন হলো কি যেন হয়েছে, কলম ধরতে মন চাচ্ছে না জানিনা কেন এমন হয়েছে। যে কলম আমার হাতের বন্ধু তাকে ছেড়ে আজ কিভাবে থাকছি এটা ভেবে অবাক হচ্ছি সারাক্ষণ। এই জানা না জানার ভিড়ে একটা কথা বার বার উঁকি দিচ্ছে মনে তাহলে কি … Read more

কবিতা ” আমি মাস্ক”

1+

কবিতাঃ “আমি মাস্ক”
কলমেঃ আবু তাহের
তারিখঃ২৪.১১.২০
গদ্য কবিতা

আমার জন্ম বৃহৎ কোন কাপড়ের
ক্ষুদ্র কোন অংশ থেকে।
কাটিং মাষ্টারের ধারালো কেঁচির দুচোয়ালের মধুর মিলনে,
সুদক্ষ কারিগরের সেলাই মেশিনের
প্রচন্ড চাপে,
সুই সুতোর নিবিড় আলিঙ্গনে,
ক্ষত বিক্ষত অজস্র বন্ধনে
আয়রন মেশিনের প্রচন্ড তাপের
অসহ্য গরল পরশে।

আগে কিন্তু আমাদের কেউ
মাস্ক বলতো না,
বলতো কাপড় বা কাপড়ের টুকরো
এখন আমাকে সবাই মাস্ক বলে ডাকে
এতে আমি গর্বিত ও আনন্দিত।

তবে মন খারাপ হয় কখন জানেন,
যখন আমাকে নিয়ে ব্যঙ্গ করে।
আমার জন্ম নিয়ে কটুক্তি করে তখন, আমার জন্ম নাকি গরুর মুখের ঠুসি থেকে।
বলেন কি খারাপটাই না লাগে?
তবুও এই বলে সান্ত্বনা দিই নিজেকে,
জন্ম হোক যথাতথা কর্ম হোক ভালো।
বলেন আপনারা আমার কর্ম কি খারাপ?
খারাপ হলে কি নিজেকে শেষ করে
কখনো কি মনুষ্য জাতিকে জীবাণু ধুলা বালি থেকে রক্ষা করতাম?

আগে তেমন মুল্যায়ন পেতাম না
তবে করোনা ভাইরাস এসে আমাদের কদর বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুণে,
সেদিক থেকে আমি তার কাছে ঋনিই রয়ে গেলাম।

আমাকে যে টাকা দিয়ে কিনবে এবং ব্যাবহার করবে আমি তার সুরক্ষার জন্য জান কুরবান করে দিবো,
ধরে নিতে পারেন দাস যুগের গোলামের মতো
সারা জীবন বিলিয়ে দিব মালিকের খেদমতে তবুও বেইমানি করবোনা।

তবে বেইমানি করতে না চাইলে ও
মানুষের জন্য বাধ্য হই করতে।
যেমন কিছু অসাধু কারিগর যেমন
তেমন কাপড়ে তৈরি করছে আমাদের,
এখানে আমাদের কি করার আছে বলুন?
তারা নিজেদের জাতির ধ্বংসের জন্য তারাই তো দায়ি।
ঐ মানুষের জন্যই আজ আমাদের সুনাম কিছুটা নিন্মমুখি ও বটে।

আমাদের কাছে আবার কোন ভেদাভেদ নেই বুঝলেন?
যার নাকের ডগায় যাই চৌকষ
প্রহরীর মতো প্রতিরক্ষা দিই সারাক্ষণ,হোক সে ভিন্ন ধর্মের বা পেশার,বড়লোক কি গরীব।

তবে আমাদের ও তো একটা জীবন আছে নাকি?
একটানা কাজ না দিয়ে মাঝে মাঝে
তো ওয়াশে দিয়ে ফুরসত দিতে ও পারেন।
তাহলেই তো নব উদ্দামে কাজটা করতে পারি।

আসলে পৃথিবীতে কোন কিছুই
তুচ্ছ নয়।
জানেন কি আমাকে আধুনিকায়নের
জন্য কতো ভাবুকরা লেগে আছে আমার পিছে?
কতো মনুষ্য জাতির কর্মসংস্হান
আমাদের তৈরী থেকে?

করোনা তোকে ধন্যবাদ
তোর আগমনে আমি আজ ধন্য,
তুই না আসলে হয়তো পৃথিবীতে আমার পরিচিতি এতো সহজে হতো না।
তবে ভাবিসনা তোদের মতো ভাইরাস দের আমরা নিমন্ত্রণ করবো?
কারন এই মনুষ্য জাতি আমাদের জন্মদাতা
আর আমরা চাইবোনা তোদের মতো ভাইরাসের সম্মুখীন এরা হোক
তবুও তারা আমাদের ব্যবহার করুক আর না করুক।
তবে আমার জন্মদাতা মনুষ্য জাতির প্রতি আমাদের কিছু কথা আছে আর
তাহলো শুধু করোনা নয় এমন লক্ষ কোটি ভাইরাস প্রতিনিয়ত বাতাসে ঘুরে বেড়ায়।
কোন না কোন মানুষ সেটা বহন করে, আর ধুলাবালির কথা তো বাদই দিলাম।
তাই আসুন আমাদের ব্যবহার করুন
সুস্হ থাকুন।

 

Read more

1+

স্মৃতি কাতরতা

1+ স্মৃতি কাতরতা জুনায়েদ খান প্রান্ত ============ আজও মনে পরে সেদিনের কথা, মমতাময়ী কন্ঠে যখন ডাকতো দাদু আমাকে। আমিও যেতাম ছুটে এক দৌড়ে তার কাছে। যখনি যেতাম তার কাছাকাছি, স্নেহ বন্ধনে জড়িয়া ধরতেন আমার গাঁ খানি। কারণে অকারণে মা যখন বকতো আমাকে, দাদুর কোলে গিয়ে মুখ লোকাতাম, ধূসররঙের কাপড়ের নিচে। তিনি যখন খেতে বসতেন থালা … Read more

আষাঢ়ের দিনে

0 আষাঢ়ের দিনে জুনায়েদ খান প্রান্ত ————————– আষাঢ় গগণে বাড়ছে মেঘেদের আনাগোনা, আকাশ ছেয়ে আছে ঘন অন্ধকারে অবেলাতে। অঝোরে ঝরছে বৃষ্টি বাতাস বেয়ে পুলকে দুলিয়া, হৃদয় আমায় বেজে ওঠে পুরোনো স্মৃতি স্মরণ করিয়া। বিস্তৃত মাঠঘাট জুড়িয়া বিদুৎ চমকায় আগুনে ঝলসিয়া, নব তৃনদলে বাদলের সুর ভাসে মুক্ত পরিবেশে। আবার এসেছে সবুজের আগমন বৃষ্টি ফোঁটার সাথে, নতুন … Read more

অপেক্ষায় রইলাম

0 অপেক্ষায় রইলাম জুনায়েদ খান প্রান্ত ================ আমার সমস্থ ভাবনা গুলোকে একত্রে করে, শহরের রাস্তাগুলোতে হাঁটতে গিয়ে উপলব্ধি বাড়ে। আত্মাকে স্পর্শ করে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে, নিমজ্জিত হয়ে বোধশক্তি গভীর প্রাণে। চিরচেনা গলির মোড়ে কিংবা হাটবাজারে, লোকজনদের আনাগোনা বড্ড কম চোখে পড়ে। আমার সমস্ত বোধ নতুন করে আবিষ্কার করি, স্মৃতিবিজড়িত পুরাতন দিনগুলো ভেবে। চেনা শব্দটি ক্রমাগত উচ্চারিত … Read more

শূন্য হৃদয়সভা

0 শূন্য হৃদয়সভা জুনায়েদ খান প্রান্ত ————————— কোথায় রহিয়াছে সেই দীপ শিখা, তাহলে কী সেথায় অন্বেষণ ভ্রমি লিখা। কোথায় গেলে পাবো আলোর দেখা, বিরহানলে জ্বলছে দ্বিগুণ হারে প্রদীপ শিখা। ডাকছি তোরে প্রেমাভিসারে গগনবিহারীতে, বেদনাদূত গাহিয়াছে গান নিশীথ অন্ধকারে। নিবিড়রতর তিমির চোখ দুখানা উঠছে জলজল করে। দৃষ্টি অগোচরে তাকিয়ে শুধু তোকেই খোঁজা। দিচ্ছে হাওয়া গাছের ডাল-পালা … Read more

স্মৃতি স্মারক

0   স্মৃতি স্মারক জুনায়েদ খান প্রান্ত ————————- বহু আকাঙ্ক্ষিত এই মূহুর্তে , দাঁড়িয়ে আছি পথের মাঝখানে। ক্লান্ত, ভ্রান্ত হয়ে ক্ষিপ্ত আমি, সন্ধানপর্বের দীর্ঘশ্বাস ফেলে। তবুও মুগ্ধ আমি এই পথে হাঁটতে গিয়ে, নির্নিমেষ জ্যোৎস্না আলো ছড়িয়েছি চারদিকে। নিদ্রার মাঝে শিহরিত হৃদয় জেগে ওঠে, হাসি,ব্যথা,স্মৃতি অবশিষ্ট যা আছে প্রাণে। একদিন হয়তো বিদায় নিবো, এই ধূসর প্রান্তের … Read more

পথ ফেরা

0 পথ ফেরা জুনায়েদ খান প্রান্ত ================ আজও হাতরে বেড়ায় তুকে, চেনা অচেনা গলির ফাঁকে। দিন যায় রাত আসে হৃদয়ে গহীন কোণে , আলোছায়া নিয়ে খেলো তুমি কোন সে সমুদ্ররে। আমি হাসি আমি বাঁচি তোমার স্মৃতি বুকে নিয়ে, দেখনা বসে আছি আজও তোমার পথ ফেরা নিয়ে। তুমিও কী খুঁজ আমায় সময়ের স্রোতের সাথে, নাকি হারিয়ে … Read more

সন্দেহ

0 সন্দেহ জুনায়েদ খান প্রান্ত =========== মনের বাহুডোরে আজ নব্যতার সাথে, আমি নই সব্য তোমার পৃথিবীতে। ভদ্র হয়েও অভদ্র আমি যখন সবার কাছে, কথা বলি হাসিমুখে উজ্জীবিত ধরণীর তলে। কথা যখন হবে তোমাতে আমাতে, সব কুয়াশা কাটবে আশা করি অচিরে। আধুনিক রীতিটাকেই মেনে মাঝে মাঝে, কাপড়চোপড়ে বখাটে ভাবে লোকজনে। কথা যখন বলি লোকসমাগমে, সন্দেহ যায় … Read more