অশরীরী

1+

আঁধারের যাত্রী আমি, রশ্মি হতে দূর
নিভৃত পাষাণ হলেও সৃষ্টি বিমুখ
অহেতুক কল্পনায় আনাগোনা
কবির ভাষায়, লেখকের রচনায়।
পরিহার করেছে সব, শব ও করেছে তাই!
শ্বশানে ছেড়েছে পথ
অমিলের ভগীরথ;
বেঁচে গেছি আঁধারে
ওই মায়ার শিকল ছেড়ে
অশরীরী হয়েও সুখে আছি,
মরেও বেঁচে গেছি।
আমি জানি,
ওই মানুষের ভবিষ্যতবাণী
হবে অকালে পতন
কালক্রমে নিধন
যে পাপ করেছে ওরা
পূর্ণ হয়েছে ঘরা
মাতৃসম বোনকে আঁচরে কামড়ে একসার করেছিস।
তোদের ওই হিংস্র নখের থাবাতে
ক্ষত বিক্ষত শরীরখানি নিয়ে বাঁচতে চেয়েও মরেছি তোদের হাতে,
শ্বশানের ধারে দাউ দাউ করে করে
অগ্নি শিখায় পুড়েছিল এক নগ্ম সমাজ;
সে চিৎকারে হয়তো আত্মা ও জেগে উঠবে
কিন্তু জাগেনি তোদের মনুষ্যত্ব।
হলাম অশরীরী এক
এমনও আসবে অনেক
কিন্তু আঁচড় মাখা শরীর নয় !
পুড়বে ওরা,
সেই মনুষ্যরা
হবে অচীরেই বোধন
শীঘ্রপতন।
আর হবেনা কেউ অশরীরী
শত জন্ম বাঁচুক নারী।

কলমে- জয় মণ্ডল

1+

Leave a Comment

error: Content is protected !!